মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ইতিহাস

          ভোলা দ্বীপটি পদ্মা মেঘনা ও বহ্মপুত্র নদীর শাখা প্রশাখায় বাহিত পলি দ্বারা গঠিত। পলি, লতা-পাতা ও কচুরিপানা ভাসমান অন্যান্য আবর্জনা ধীরে ধীরে জমা হয়ে প্রবাল দ্বীপের ন্যয় চর পড়া শুরু হয়, এর সাথে পলি জমে এ মূল ভূখন্ডের উৎপত্তি হয় । এই দ্বীপের বয়স প্রায় ৫০০ বছর ।

 

          ভোলা নামকরণের পিছনে স্থানীয়ভাবে একটি কাহিনী প্রচলিত আছে ।ভোলা শহরের মধ্যে দিয়ে বয়ে যাওয়া বেতুয়া নামক খালটি এখনকার মত অপ্রশস্ত ছিলনা । এক সময় এটা পরিচিত ছিল বেতুয়া নদী নামে । খেয়া নৌকার সাহায্যে লোকজনের পারাপারের কাজ চলত ।  খুব বুড়ো এক মাঝি এখানে খেয়া নৌকার সাহায্যে লোকজনকে পারাপারের কাজ করত । তার নাম ছিল ভোলা গাজী পাটনী । আজকের যুগিরঘোলের কাছেই তার আস্তানা ছিল । এই ভোলা গাজীর নাম অনুসারেই এক সময় স্থানটির নামকরণ হয় ভোলা।

 

          ভোলা থানা ১৯১৬ সালের ১৮ এপ্রিলের ৬৫১৯ ও ১৯৮০ সালের ২৭ আগস্ট তারিখের ৪২০৩ পি,এল স্মারকবলে বর্তমান স্থানে ভোলা থানার দালানটি নির্মিত হয় । যদিও ১৮৯২ সাল থেকেই এখানে নিয়মিতভাবে কাজকর্ম চলে আসছে তবে ভোলা থানাটি ১৯৪২ সালে স্থাপিত । ভোলা থানাটি ২২   ৩২ অক্ষাংশ থেকে ২২  ৫২  উত্তর এবং ৯০  ৩২  থেকে ৯০  ৪০  দ্রাঘিমাংশ পূর্বে অবস্থিত । পরবর্তীতে ০১/০২/১৯৮৪ খৃঃ তারিখ এটি উপজেলায় উন্নিত হয় ।